• শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৯:১১ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
গৃহহীন অসহায় মমতাজকে টিম হাসিমুখের ঘর উপহার! বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারাদেশে যুবলীগের বিক্ষোভ দেশজুড়ে দৃষ্টিনন্দন ইসলামি ভাস্কর্য রামগঞ্জে দল্টা বাঙ্গালী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং নকল আওয়ামী লীগের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে আসল আওয়ামীলী লীগ’ বসুরহাট পৌরসভার জনকল্যাণে নিবেদিতপ্রাণ আবদুল কাদের মির্জা ‘তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হবে’ যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার থানায় জিডি ভাস্কর্য বিরোধীতার আগে শিশু বলাৎকার বন্ধ করুন: ডা. জাফরুল্লাহ কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাসান ইমাম রাসেল’র জন্মদিন উদযাপন

২০২৩ সালের আগে বিমান ভ্রমণ ‘স্বাভাবিক’ নাও হতে পারে!

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০

সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এই মারণ ভাইরাস ঠেকাতে শহরের পর শহর লকডাউন ঘোষণা করা হচ্ছে। বন্ধ হয়ে যাচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থাও। বিমান চলাচল প্রায় স্থাবির হয়ে পড়েছে। কখন থেকে আবার চালু হবে স্বাভাবিক যোগাযোগ ব্যবস্থা সেই ব্যাপারে এখনো কোনো তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। তবে বলা হচ্ছে, ২০২৩ সালের আগে বিমান ভ্রমণ বা বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক নাও হতে পারে। 

বৈশ্বিক ভ্রমণবিষয়ক বিশেষজ্ঞ গ্রুপ এটমোস্ফিয়ার রিসার্চ গ্রুপের তথ্য মতে, ‘করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে’; এরকম ঘোষণা করার পরও বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হতে আরো টানা দুই বছর সময় লাগতে পারে। অর্থাৎ ২০২৩ সাল নাগাদ বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হবে। তাদের মতে, যোগাযোগ ব্যবস্থা দ্রুত ফিরে আসার পরিবর্তে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হবে। অভ্যন্তরীণ ভ্রমণ ব্যবস্থা চালু হবে সবার আগে। 

এটমোস্ফিয়ার রিসার্চ গ্রুপের মতে বিমান ভ্রমণ ‘স্বাভাবিক’ হওয়ার আনুমানিক সময়রেখা-

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ঘোষণা করার পর প্রথম ৬ থেকে ৯ মাস করোনাভাইরাস-উত্তর ভ্রমণগুলো চালু হবে। সেসময় সাহসী ‘টিপটো ভ্রমণকারী দল’ ভ্রমণে বের হবে। এই গ্রুপে কিছু ব্যবসায়ীক ভ্রমণকারী থাকবে। এটি প্রাথমিকভাবে ব্যক্তিগত ও অবসরভিত্তিক ভ্রমণও হতে পারে। মূলত অভ্যন্তরীণ রুটে ভ্রমণ শুরু হবে। চেকআপ করার জন্য কিছু দূরবর্তী আন্তর্জাতিক ফ্লাইটও চালু হতে পারে।তাদের মতে, ৮ থেকে ১৬ মাসের মধ্যে (২০২২ সালের মাঝামাঝি পর্যন্ত) আরো একটি গ্রুপ বিমান ভ্রমণ শুরু করবে। তাদের বলা হচ্ছে, ‘অগ্রদূত’। এই গ্রুপটির নেতৃত্ব দিবে ব্যবসায়িক ভ্রমণকারীরা। পাশাপাশি থাকবে মধ্য থেকে উচ্চপর্যায়ের মানুষগণ। যাদের বছরে আয় এক লাখ ২৫ হাজার মার্কিন ডলার এবং তার চেয়ে বেশি। মূলত দূরপাল্লার আন্তর্জাতিক ফ্লাইটগুলো তখন চালু হবে।

এটমোস্ফিয়ার রিসার্চ গ্রুপের তথ্য মতে, ১২ থেকে ১৮ মাসের মধ্যে ভ্রমণ করতে শুরু করবে ‘নিয়ার-নরমাল ভলিউম অব বিজনেস ট্রাভেলেরস’ গ্রুপটি। ব্যবসায়িক প্রিমিয়াম কেবিনে করে তারা ভ্রমণ করবেন। ২০২২ সালের শেষের দিকে ব্যবসায়িক ভ্রমণ মূলত স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে। তাদের তথ্য মতে, ১৬ থেকে ২৪ মাসের (২০২২ সালের পরে) মধ্যে বিমানের সব ফ্লাইট চালু হবে। যদি করোনাভাইরাস ২২ সালের আগে নিয়ন্ত্রণে আসে। 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/