• শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ১০:০৪ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
গৃহহীন অসহায় মমতাজকে টিম হাসিমুখের ঘর উপহার! বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারাদেশে যুবলীগের বিক্ষোভ দেশজুড়ে দৃষ্টিনন্দন ইসলামি ভাস্কর্য রামগঞ্জে দল্টা বাঙ্গালী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং নকল আওয়ামী লীগের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে আসল আওয়ামীলী লীগ’ বসুরহাট পৌরসভার জনকল্যাণে নিবেদিতপ্রাণ আবদুল কাদের মির্জা ‘তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হবে’ যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার থানায় জিডি ভাস্কর্য বিরোধীতার আগে শিশু বলাৎকার বন্ধ করুন: ডা. জাফরুল্লাহ কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাসান ইমাম রাসেল’র জন্মদিন উদযাপন

নবীজীকে কটূক্তি করলে কঠোর শাস্তি: প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৪ নভেম্বর, ২০১৮

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন যে, যদি কোন লোক সোসাল মিডিয়া ব্যবহার করে সোজাসুজি হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর বিরুদ্ধে বাজে কথা বলে বা কুটুক্তি করে  তাহলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রবিবার (4 নভেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের কোওমী মাদ্রাসার স্বীকৃতিস্বরূপ শোক্রানা মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন যে বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ সন্ত্রাসবাদ ও মাদকাসক্তির জায়গা হবে না। এ সময় ক্রেস্ট প্রদান করে প্রধানমন্ত্রীকে সন্মানিত করা হয়।

কাওমী মাদ্রাসা থেকে কাওমী শিক্ষা কে  সৃকৃতি দেয়ায় প্রধান মন্ত্রীকে’“কওমি জননী’ উপাধি দেয়া হয়।এসময় মোনাজাত ও দোয়া করা হয়।

শোক্রানা মাহফিলের ভাষণে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন আহমদ শফি।

তিনি বলেন, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের সামাজিক অবস্থা কোয়ামি শিক্ষার স্বীকৃতির মাধ্যমে বৃদ্ধি পেয়েছে।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়নে তাঁর সরকারের ভূমিকা তুলে ধরেন। তিনি আগামী নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য সকলের কাছে প্রার্থনা করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা জানি যে সামাজিক প্রচার মাধ্যমের বিভিন্ন প্রপাগান্ডা চালানো হয়। এই প্রচারণা কেউ বিশ্বাস করবে না।

এই সব প্রচারণাটি বন্ধ করার জন্য আমরা সাইবার অপরাধ আইন ইতিমধ্যেই সম্পন্ন করেছি। যে কেউ মিথ্যা প্রচার চালানো হলে, তাদের কে এই আইন দ্বারা বিচার করা হবে।

তিনি আরও বলেন, “আমাদের ধর্ম ইসলাম। যদি কেউ আমাদের নবীকে নিয়ে বিতর্ক করে তবে সে আইন দ্বারা বিচার করবে।

আমরা প্রমাণ করতে চাই যে ইসলামই শান্তি ধর্ম। বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের কোন জায়গা থাকবে না, সেখানে থাকবে সন্ত্রাসের কোন স্থান নেই, মাদকের কোন জায়গা নেই, দুর্নীতি হবে না।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/