• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
সালাউদ্দিন কে সরাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়! জনতার রাজনীতির এক যোদ্ধার নাম সম্রাট সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা জুয়েলকে যুক্তরাষ্ট্রস্থ কোম্পানীগঞ্জবাসীর সংবর্ধনা! ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ড একটি জাতিগোষ্ঠী ও জাতিসত্তাকে গণহত্যার সামিল রামগঞ্জে ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে নোয়াখালীতে ছাত্রলীগের উদ্যোগ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ২১ শে আগস্ট ও বিএনপির ঐতিহাসিক বিচারহীনতার চরিত্র কোম্পানীগঞ্জসহ আরও ১০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলের স্থান চূড়ান্ত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা: কী ঘটেছিল সেই দিন বঙ্গবন্ধু বিশ্বের মুক্তিকামী সকল মানুষের রাজনৈতিক আদর্শ

১৫ বছরেও প্যাকেট খোলা হয়নি সরকারী হাসপাতালের এক্সরে মেশিন!

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

বরাদ্দ পাওয়ার ১৫ বছর পরেও প্যাকেটবন্দি হয়ে পড়ে আছে কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক্সরে মেশিনটি। অভিযোগ রয়েছে, বিদ্যুতের লো-ভোল্টেজের অজুহাত দেখিয়ে মেশিনটি বন্ধ রাখা হয়েছে। অথচ এই উপজেলায় রয়েছে দেশের একমাত্র জলবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র। এদিকে এক্সরে মেশিনটি বন্ধ থাকার কারণে সাধারণ রোগীদের বেশি টাকা খরচে স্থানীয় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে সেবা নিতে হচ্ছে। এতে তাদের চিকিৎসা ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে কয়েকগুণ। দ্রুততম সময়ে মেশিনটি চালুর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সেবা নিতে আসা মো. রফিক মিয়া ও মইনুল হক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সরকার জনগণের চিকিৎসা সেবা দিতে এক্সরে মেশিন দিলেও সেটি গত ১৫ বছরে একবারের জন্যও চালু হয়নি। এই এক্সরে মেশিনটি আমাদের চিকিৎসা সেবায় কোনও কাজে আসছে না। তাই কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের দাবি, শুধু লো-ভোল্টেজের অজুহাত না দেখিয়ে এটি কীভাবে চালু করা যায় সে বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হোক।

এক্সরে কক্ষ এ বিষয়ে কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মাসুদ আলম চৌধুরী জানিয়েছেন, এক্সরে মেশিনটি চালুর বিষয়ে আমি বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে বহুবার যোগাযোগ করেছি। মেশিনটি চালাতে যে ভোল্টের বিদ্যুৎ প্রয়োজন, তা পাওয়া যাচ্ছে না।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফ উদ্দীন বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর বিষয়টি জেনেছি। এরপর সিভিল সার্জনের সঙ্গে যোগাযোগ করে জেনেছি মেশিনটি চালাতে ৪৪০ ভোল্ট বিদ্যুৎ প্রয়োজন। তবে পুরনো ৩১ শয্যার হাসপাতালে বিদ্যুৎ পাওয়া যাচ্ছে ২২০ ভোল্ট। কাপ্তাই উপজেলায় নতুন হওয়া ৫০ শয্যার হাসপাতালে ৪৪০ ভোল্ট বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। ওই সংযোগ ব্যবহার করে এক্সরে মেশিনটি চালু করা যায় কিনা, সে জন্য পদক্ষেপ নিতে সিভিল সার্জনকে অনুরোধ করেছি।’
তবে ১৫ বছর তালাবন্দি থাকা এক্সরে মেশিনটি আদৌ চালু করা যাবে কিনা সে বিষয়ে সঠিক কিছু বলতে পারেননি রাঙামাটি পার্বত্য জেলার সিভিল সার্জন ডা. শহীদ তালুকদার। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ব্যবহার না হওয়ায় এক্সরে মেশিনটি কাজ করবে কিনা সন্দেহ আছে। এখন সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডিজিটাল এক্সরে মেশিন রয়েছে। তাই আমরা মন্ত্রণালয়ে একটি ডিজিটাল এক্সরে মেশিন বরাদ্দের জন্য আবেদন করেছি।’ বরাদ্দ পেলে সমস্যা থাকবে না বলে জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/