• শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
সালাউদ্দিন কে সরাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়! জনতার রাজনীতির এক যোদ্ধার নাম সম্রাট সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা জুয়েলকে যুক্তরাষ্ট্রস্থ কোম্পানীগঞ্জবাসীর সংবর্ধনা! ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ড একটি জাতিগোষ্ঠী ও জাতিসত্তাকে গণহত্যার সামিল রামগঞ্জে ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে নোয়াখালীতে ছাত্রলীগের উদ্যোগ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ২১ শে আগস্ট ও বিএনপির ঐতিহাসিক বিচারহীনতার চরিত্র কোম্পানীগঞ্জসহ আরও ১০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলের স্থান চূড়ান্ত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা: কী ঘটেছিল সেই দিন বঙ্গবন্ধু বিশ্বের মুক্তিকামী সকল মানুষের রাজনৈতিক আদর্শ

মা-বোনদের সম্মান করলে এমন ঘটনা ঘটতো না: আতিক

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২০

আসন্ন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেছেন, আমরা আসলে আমাদের মায়েদের সম্মান করতে ভুলে গেছি। মা থেকেই তো আমরা সবাই। আমরা যদি আমাদের মা-বোনদের সম্মান করতাম, তাহলে এমনটা হতো না।

মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) রাজধানীর তিতুমীর কলেজের সামনে ধর্ষণের প্রতিবাদে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিপন মিয়া আতিককে নির্বাচনী ইশতেহারে নারীবান্ধব নগর গড়ার অঙ্গীকার অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, আমরা আসলে আমাদের মায়েদের সম্মান করতে ভুলে গেছি। মা থেকেই তো আমরা সবাই। আমরা যদি আমাদের মা-বোনদের সম্মান করতাম, তাহলে এমনটা হতো না। কারণ এমন ঘটনা আমাদের মা-বোনদের সঙ্গে হলে সেটা আমরা মেনে নিতে পারবো না। মানুষরূপী পশুদের এমন শাস্তি হওয়া উচিত যেন আর কেউ এমন অপরাধ করার কথা চিন্তাও করতে না পারি।

আতিক বলেন, এই শহরে নারীরা যেন অবাধ ও নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারে, এর জন্য কাজ করবো। এই শহরকে নারীবান্ধব নগরে পরিণত করার অঙ্গীকার করছি। বিষয়টি আমার নির্বাচনী ইশতেহারে থাকবে এবং এটি বাস্তবায়নও করবো।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের যেসব এলাকা অন্ধকার, সেগুলো আলোকিত করতে হবে। তবে এখন মূল দাবি ধর্ষককে শাস্তির আওতায় আনা। এরজন্য আমি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। তিনি যেমন নুসরাত হত্যার বিচার দ্রুততার সঙ্গে নিশ্চিত করেছেন, তেমনি এবারেও দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক বিচার নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আমরা আসলে আমাদের মায়েদের সম্মান করতে ভুলে গেছি। মা থেকেই তো আমরা সবাই। মা-বোন সবাই। আমরা যদি আমাদের মায়েদের সম্মান করি, বোনদের সম্মান করি, তাহলে এমনটা হতো না। কারণ এমন ঘটনা আমাদের মা-বোনদের সঙ্গে হলে সেটা আমরা মেনে নিতে পারবো না। মানুষরূপী পশুদের এমন শাস্তি হওয়া উচিত যেন আর কেউ এমন অপরাধ করার কথা চিন্তাও করতে না পারে।

মানববন্ধনে তিতুমীর কলেজের অধ্যক্ষ আশরাফ হোসেন, উপাধ্যক্ষ আবিদা সুলতানা, ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী এবং সাধারণ শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন।

বিবার্তা/জহির

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/