• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৫৯ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
সালাউদ্দিন কে সরাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়! জনতার রাজনীতির এক যোদ্ধার নাম সম্রাট সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা জুয়েলকে যুক্তরাষ্ট্রস্থ কোম্পানীগঞ্জবাসীর সংবর্ধনা! ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ড একটি জাতিগোষ্ঠী ও জাতিসত্তাকে গণহত্যার সামিল রামগঞ্জে ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে নোয়াখালীতে ছাত্রলীগের উদ্যোগ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ২১ শে আগস্ট ও বিএনপির ঐতিহাসিক বিচারহীনতার চরিত্র কোম্পানীগঞ্জসহ আরও ১০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলের স্থান চূড়ান্ত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা: কী ঘটেছিল সেই দিন বঙ্গবন্ধু বিশ্বের মুক্তিকামী সকল মানুষের রাজনৈতিক আদর্শ

বিয়ের একদিন আগে কলেজছাত্রী মিতুর ‘আত্মহত্যা

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২০

বিয়ের আগের দিন ইডেন কলেজের ছাত্রী মেহের আফরোজ মিতু (২১) ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার মাগুরা শহরের কলেজ রোডের নিজ বাড়িতে তিনি আত্মহত্যা করেন। মিতু ওই এলাকার মুদি ব্যবসায়ী বাবুল আকতারের মেয়ে। তিনি ঢাকার ইডেন কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। নিজের সিদ্ধান্তের বাইরে বিয়ের কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা পুলিশ ও স্থানীয়রা।

প্রতিবেশিরা জানান, দিন ১৫ আগে মিতু (২১) ঢাকা থেকে মাগুরায় ফিরেছে। শহরের জেলা পাড়ায় অধ্যাপক নিজাম উদ্দিনের বাড়িতে বাবা-মায়ের সঙ্গেই বসবাস করছিলেন তিনি। দুই মাস আগে তার সিদ্ধান্তের বাইরে বরিশালে খান ওয়ালিউল ইসলাম স্বাধীন নামে এক ছেলের সঙ্গে তার বিয়ের কাবিন করা হয়।

বিয়ের চূড়ান্ত আনুষ্ঠানিকতার জন্যে শুক্রবার বরপক্ষের মাগুরাতে মিতুর বাড়িতে আসার কথা। তার একদিন আগেই সকালে ঘরের দরজা বন্ধ করে সে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

মিতুর বাবা বাবুল আকতার জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির অন্যান্যরা ঘুম থেকে উঠলেও মিতু দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে ছিল। এ অবস্থায় বেলা ১১টার দিকে মিতুর মা তাকে ডাকাডাকি করলেও কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙে তাকে ফ্যানের সঙ্গে ওড়নায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পাওয়া যায়। ঘটনার পর মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও কিছুক্ষণের মধ্যেই তার মৃত্যু হয়।

বাবা বাবুল আকতার বলেন, গত রাতেও স্বামীর সঙ্গে কথা হয়েছে। মেয়ের কথাবার্তায় কোনো অস্বাভাবিকতা দেখা যায়নি। অথচ সে আত্মহত্যা করে বসবে এমন ভাবতেও পারিনি।

মিতুর মৃত্যুর বিষয়ে মাগুরা সদর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে নিশ্চিত হওয়ার পর থানায় অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। বিয়ে সংক্রান্ত কিংবা অন্য কোনো বিষয়ে কারো সঙ্গে মনোমালিন্যের কারণেই এমনটি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে স্ত্রী মিতুর আত্মহত্যার খবর পেয়ে ঢাকায় বায়িং হাউজে কর্মরত হবু স্বামী ওয়ালিউল ইসলাম স্বাধীন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে সদর থানার ওসি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/