• শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৪২ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
গৃহহীন অসহায় মমতাজকে টিম হাসিমুখের ঘর উপহার! বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারাদেশে যুবলীগের বিক্ষোভ দেশজুড়ে দৃষ্টিনন্দন ইসলামি ভাস্কর্য রামগঞ্জে দল্টা বাঙ্গালী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং নকল আওয়ামী লীগের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে আসল আওয়ামীলী লীগ’ বসুরহাট পৌরসভার জনকল্যাণে নিবেদিতপ্রাণ আবদুল কাদের মির্জা ‘তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হবে’ যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার থানায় জিডি ভাস্কর্য বিরোধীতার আগে শিশু বলাৎকার বন্ধ করুন: ডা. জাফরুল্লাহ কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাসান ইমাম রাসেল’র জন্মদিন উদযাপন

নতুন মুসলিম দেশ হিসাবে আত্মপ্রকাশ করছে বাংসামরো

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮

বিশ্ব মানচিত্রে যোগ হতে চলেছে পূর্ব এশিয়ার ফিলিস্তিন নামে পরিচিত বাংসামরো আলাদা মুসলিম রাষ্ট্র। আগে এটি ছিলো মিন্দানাও অঞ্চলের অন্তর্ভুক্ত একটি অঞ্চল।

আগামী বছর জানুয়ারি মাসেই বিশ্ব মানচিত্রে স্বায়ত্বশাসিত মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে বাংসামরো নতুন এই দেশটি। একটি অখ্যাত ও নির্যাতিত মুসলিম জনপদ ছিলো এটি।

নতুন এই বাংসামরোর জনসংখ্যা মোট ২ কোটি ৫৬ লাখ এদের মধ্যে ৯২ শতাংশই মুসলিম।

আনুমানিক শতবছর ধরে নিপীড়িত এই  অঞ্চলের রয়েছে সুদীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস। বৃটিশদের ও  স্পেনিশ পর বাংসামরো মুসলিমরা প্রায় ৫০ বছর ধরে সংগ্রাম/ আন্দোলন করছে ফিলিপাইন সরকারের বিরুদ্ধে স্বাধিনতার জন্য। আর  এতে লাখো মুসলিমের প্রাণহানী ঘটেছে দীর্ঘদিন ধরে।

বাংসামরো ফিলিপাইনের একটি মুসলিম অধ্যুষিত এরিয়া,  এ কারণেই হয়তো ফিলিপাইন কর্তৃপক্ষ এর প্রতি সুনজর দেয়নি কখনো ফলে এই এলাকা এখনো অনুন্নত।

স্বাধীনতাকামী এই মুসলিম অঞ্চলে জন্য খুব কম দেশই সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে, কিন্তু এর পরও তারা নিজেদের বিশ্বাস ও চেতনার বলে স্বাধীনতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে।  মরোদের দীর্ঘ আন্দােলন, সংগ্রামের পর এই প্রথম ফিলিপাইন সরকারের প্রেসিডেন্ট দুতার্তে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘বাংসামরো’ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছেন।

এই বাংসামরো এরিয়াটি নানা খনিজসম্পদে সমৃদ্ধ। প্রতিরক্ষার জন্য রয়েছে ঈমানদীপ্ত তরুণ দল। এই ঈমানদীপ্ত তরুণ দল নতুন রাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত। কিন্তু ফিলিপিনো সরকার এ ঈমানদীপ্ত তরুণ দল মরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্ট ভেঙে দিতে চায়।

সুত্রমতে জানা যাচ্ছে, নতুন এই দেশের প্রধান হবেন ড. মুরাদ ইবরাহিম। মরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্টের আপোসহীন সংগ্রামী ড. মুরাদ ইবরাহিম বাংসামরো জনগণের আশার আলো জ্বেলেছেন।

মুরাদ ইবরাহিমের  দৃঢ় মনোবলের ও আপোসহীনতা সুফল আজকের বাংসামরোর স্বাধীন সরকার। সেখানকার জনগণ  উচ্ছ্বসিত ও উদ্বেলিত স্বাধীনতার স্পর্শে, এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহও বুকভরা আশা নিয়ে তাকিয়ে আছে মরো জনপদের প্রতি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/