• শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:১৭ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
সালাউদ্দিন কে সরাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়! জনতার রাজনীতির এক যোদ্ধার নাম সম্রাট সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা জুয়েলকে যুক্তরাষ্ট্রস্থ কোম্পানীগঞ্জবাসীর সংবর্ধনা! ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ড একটি জাতিগোষ্ঠী ও জাতিসত্তাকে গণহত্যার সামিল রামগঞ্জে ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে নোয়াখালীতে ছাত্রলীগের উদ্যোগ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ২১ শে আগস্ট ও বিএনপির ঐতিহাসিক বিচারহীনতার চরিত্র কোম্পানীগঞ্জসহ আরও ১০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলের স্থান চূড়ান্ত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা: কী ঘটেছিল সেই দিন বঙ্গবন্ধু বিশ্বের মুক্তিকামী সকল মানুষের রাজনৈতিক আদর্শ

সাজাপ্রাপ্ত আসামী হয়েও যেভাবে খালেদা জিয়া নির্বাচন করতে পারবেন

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নিঃসন্দেহে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন, দলের সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে মন্তব্য করবেন।

সোমবার গুলশানের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, “আমরা এখনও বিশ্বাস করি যে তিনি নির্বাচন যোগ্য এবং আমরা বিশ্বাস করি যে তিনি নির্বাচন করতে পারবেন।”

প্রার্থীকে নিয়ে বিতর্ক থাকলে জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, আমাদের প্রার্থী নিয়ে কোনো দ্বন্দ্ব নেই। দলের সমর্থন যারা সবাই কাজ করবে।

কারণ এটি আমাদের চূড়ান্ত আন্দোলনের অংশ। সুতরাং আমাদের একক প্রার্থী ভোট অংশ নিতে হবে। কারণ এই নির্বাচনে বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ নির্ভর করে। নির্বাচনে প্রার্থী ড। দেশের প্রতি আনুগত্য থাকবে, গণতন্ত্র, এবং গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় পার্টি ভূমিকা পালন করবে। আমাদের প্রার্থীদের অধিকাংশ এই বিষয়ে একমত।

মির্জা ফখরুল বলেন, আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিএনপি ও জোটের জনগণের অধিকার ফিরিয়ে আনা শুরু হয়েছে, আমরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। বহু প্রতিকূলতা সত্ত্বেও, আমরা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াতে ক্ষমতার পরিবর্তনে বিশ্বাস করি। এবং সেই কারণে, একটি অসমাপ্ত নির্বাচন স্থলতে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার অংশ হিসাবে, আমি যারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহী তাদের সাক্ষাত্কার করতে চাই।

ফখরুল বলেন, আমরা গতকাল রাজশাহী ও রংপুরে সাক্ষাত্কার শেষ করেছি। আজ বরিশাল বিভাগের 183 জন সভায় সভাপতিত্ব করেন ড। এখন খুলনা বিভাগের মনোনীত প্রার্থীদের সাক্ষাতকার গ্রহণ করা হবে। এ সময়, ফখরুল অভিযোগ করেন যে এখনও নির্বাচনে অসুবিধা রয়েছে, এটি পর্যাপ্ত খেলার ক্ষেত্রের জন্য যথেষ্ট নয়। সরকার আমাদের কোন দাবি গ্রহণ করেনি। এমনকি প্রধানমন্ত্রীও এ প্রতিশ্রুতি পালন করেননি। আমরা প্রায় আমাদের প্রার্থীদের জেলে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে দেখেছি। বিশেষ করে যারা সম্ভাব্য প্রার্থী তাদের ক্ষেত্রে গ্রেফতার করা হচ্ছে।

আমরা নির্বাচন কমিশনের পশ্চাদপসরণে এই বিষয়গুলো দিয়েছি, কিন্তু সরকার এখনো কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমি মনে করি চলমান প্রক্রিয়াগুলিতে নির্বাচনগুলি নিরপেক্ষ এবং ন্যায্য হবে না। তাই আমরা মুক্ত নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সকল গ্রেফতার বন্ধ করতে আবার ডাকব। রাজবন্দী মুক্তি পাবে। বিশেষ করে বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/