• বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৪৮ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
গৃহহীন অসহায় মমতাজকে টিম হাসিমুখের ঘর উপহার! বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারাদেশে যুবলীগের বিক্ষোভ দেশজুড়ে দৃষ্টিনন্দন ইসলামি ভাস্কর্য রামগঞ্জে দল্টা বাঙ্গালী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং নকল আওয়ামী লীগের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে আসল আওয়ামীলী লীগ’ বসুরহাট পৌরসভার জনকল্যাণে নিবেদিতপ্রাণ আবদুল কাদের মির্জা ‘তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হবে’ যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার থানায় জিডি ভাস্কর্য বিরোধীতার আগে শিশু বলাৎকার বন্ধ করুন: ডা. জাফরুল্লাহ কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাসান ইমাম রাসেল’র জন্মদিন উদযাপন

হাঁটু গেড়ে মাথা নত করে ক্ষমা চাইল যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশ

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১ জুন, ২০২০

কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে গ্রেফতারের পর পুলিশ কর্মকর্তা হাঁটু দিয়ে তার গলা চেপে মেরে ফেলে। নির্মম এই হত্যাকণ্ডের প্রতিবাদে ছয়দিন ধরে যুক্তরাষ্ট্র ক্ষোভের আগুন জ্বলছে। গোটা দেশের বিক্ষোভের সময় নিউইয়র্ক-মিয়ামি পুলিশের সদস্যরা বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংহতি জানিয়েছে অনন্য নজির গড়েছেন।

জর্জ ফ্লয়েড নামের ওই ব্যক্তির হত্যার প্রতিবাদে নিউইয়র্কে বিক্ষোভ চলছিল। বিক্ষোভকারীরা হাঁটু গেড়ে বসে নীরবতা পালন করছিলেন। এ সময় নিউইয়র্ক পুলিশও তাদের সঙ্গে যোগ দেন এবং তারাও হাঁটু গেড়ে বসে নীরবতা পালন করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ছড়িয়ে পড়েছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক অনলাইন প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নিউইয়র্কে পুলিশ কর্মকর্তাদের সংহতি জানানোর সেই ভিডিও ধারণ করেছেন আলিয়া আব্রাহাম। তিনি বলেন, ‘আমি এমনটি প্রত্যাশা করিনি। কখনও এমনটি দেখি নাই।’

nypd

কৃষ্ণাঙ্গদের একটি সংগঠন পরিচালনাকারী আব্রাহাম নামের তরুণী জানান, অ্যাক্টিভিস্ট তার এই জীবনে পুলিশ কর্মকর্তাদের এমন কিছু করতে কখনো দেখেননি তিনি। তবে এমন সংহতি জানানোই যথেষ্ট নয়। তিনি বলেন, ‘এটি দারুণ ও ভালো লক্ষণ। কিন্তু আমরা যা চাই তা নির্দিষ্ট পদক্ষেপ।’

যুক্তরাষ্ট্রে অর্ধশতাধিক শহরে হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভ চলছে মিয়ামি শহরেও। অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারী সেখানে গ্রেফতার হয়েছে পুলিশের হাতে। কিন্তু কয়েকজন পুলিশ সদস্য হাঁটু গেড়ে বসে সংহতি জানানোর ফলে অনেক প্রতিবাদকারীই অবাক হয়েছেন।

তবে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের এই শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান অন্যান্য শহরে ছিল না। বিভিন্ন স্থানে গাড়ি পোড়ানো, দোকান লুটপাট এবং পুলিশ- বিক্ষোভকারী মুখোমুখি অবস্থানে ছিল। এছাড়া বিক্ষোভ দমনে ৪০টি শহরে কারফিউ জারি করা হয়েছে। সেনাবাহিনী সক্রিয় অন্তত ১৫টি অঙ্গরাজ্যে।

nnnn

গত সোমবার মিনেসোটা রাজ্যের মিনিয়াপোলিসে আটক ৪৬ বছর বয়সী জর্জ ফ্লয়েড পুলিশ হেফাজতে মারা যান। হাতকড়া পরানো ফ্লয়েডের গলায় পুলিশের হাঁটু দিয়ে চেপে রাখার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে চার পুলিশকে বরখাস্ত করে কর্তৃপক্ষ।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল গার্ড রোববার জানিয়েছে, রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিসহ ১৫টি রাজ্যে তাদের পাঁচ হাজার সদস্যকে মোতায়েন করা হয়েছে। ওয়াশিংটন ডিসিতে বিক্ষোভাকারীরা রোববারও হোয়াইট হাউসের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছে, রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে নিরাপত্তা কর্মীদের দিকে ঢিল ছুড়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/