• শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৮:৫৩ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
গৃহহীন অসহায় মমতাজকে টিম হাসিমুখের ঘর উপহার! বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারাদেশে যুবলীগের বিক্ষোভ দেশজুড়ে দৃষ্টিনন্দন ইসলামি ভাস্কর্য রামগঞ্জে দল্টা বাঙ্গালী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং নকল আওয়ামী লীগের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে আসল আওয়ামীলী লীগ’ বসুরহাট পৌরসভার জনকল্যাণে নিবেদিতপ্রাণ আবদুল কাদের মির্জা ‘তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হবে’ যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার থানায় জিডি ভাস্কর্য বিরোধীতার আগে শিশু বলাৎকার বন্ধ করুন: ডা. জাফরুল্লাহ কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাসান ইমাম রাসেল’র জন্মদিন উদযাপন

নড়াইলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের লোহাগড়া উদ্যোগে ধান কাটা শুরু

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৯ মে, ২০২০


উজ্জ্বল রায় (নিজস্ব প্রতিবেদক) নড়াইল॥ সারা দেশে করোনার প্রদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় শ্রমিকসংকটের কারণে কৃষকরা জমির ধান কাটা নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। প্রধানমন্ত্রী
শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে নড়াইলেরলোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের
উদ্যোগে ধান কাটা কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। উজ্জ্বল রায় (নিজস্ব প্রতিবেদক) নড়াইল জানান,  শুক্রবার (৮ মে) উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামের দরিদ্র কৃষক ইকলাস শেখের জমির
ধান কাটার উদ্বোধন করেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.
মোল্লা আমীর হোসেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যশোর শিক্ষা
বোর্ডের প্রকৌশলী মো: কামাল হোসেন, নড়াইল জেলা মাধ্যামিক কর্মকর্তা মো:
ছায়েদুর রহমান, লোহাগড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ
ভূঁইয়া, আমাদা আদর্শ কলেজের অধ্যক্ষ মো: আল ফয়সাল খান, লোহাগড়া সরকারি
পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম হায়াতুজ্জামানসহ বিভিন্ন কলেজ
ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীরাও
এ ধান কাটায় অংশ গ্রহণ করেন।
বর্গা চাষী ইকলাস শেখ বলেন, আমি একজন চা বিক্রেতা। অর্থসংকট ও জনবলের
অভাবে ধান কাটতে না পারায় নড়াইলের লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি আমার ৮০ শতক জমির ধান কেটে দিচ্ছেন। নড়াইলের
লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম হায়াতুজ্জামান
জানান,আমার বিদ্যালয়ের যে সকল দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পরিবার অর্থ ও জনবলের
অভাবে ধান কাটতে পারছে না আমারা তাদের ধান কেটে দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ
করেছি।
যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোল্লা আমীর হোসেন বলেন,
দেরীতে হলেও এটা সময় উপযোগি। আমি আশা করবো সকল স্কুল ও কলেজের শিক্ষক ও
শিক্ষার্থীরা গরীব কৃষকদের ধান কেটে দিতে এভাবে পাশে দাঁড়াবে

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

http://digitalbangladesh.news/