• শনিবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৯, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন

পটুয়াখালী-৪ কলাপাড়া (রাঙ্গাবালী) নির্বাচনী হালচাল।

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৮

কলাপাড়া, পটুয়াখালী, প্রতিনিধিঃ

 

পটুয়াখালী -৪ (কলাপাড়া-রাঙ্গাবালী) এলাকাটি দক্ষিণ অঞ্চলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলির মধ্যে একটি। পায়রা সমুদ্রবন্দর, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, শেরেবাংলা নৌঘাটি এবং পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা সহ হাজার হাজার টাকার অবকাঠামো  বিকাশের ধারাবাহিকতায় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ সহ  সকল রাজনৈতিক দলের এই আসন টি কে গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করে।

 

১১তম সংসদীয় নির্বাচনের সময়সূচি ঘোষণার পর, আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের মনোনীত প্রার্থীরা দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র কিনেছিল। বিএনপি ও আওয়ামী লীগ সহ প্রার্থীদের অনুগামীরা এখন নিজ নিজ নেতাদের স্লোগান দেওয়ার জন্য ঢাকায় রয়েছেন।

 

আওয়ামীলীগ দলের সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের ১১ তম সংসদীয় নির্বাচনে মনোনয়ন ফরমের সর্বোচ্চ সংখ্যা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করা হয়েছে। এদের মধ্যে আছেন – বর্তমান সংসদ সদস্য মাহবুবুর রহমান তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রাক্তন সভাপতি আলাউদ্দিন বেপার, বর্তমান মেয়র ও কালাপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বিহিল হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক এসএম রকিবুল আহসান, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির উপ-সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ইসলাম লিটন।

 

মনোনয়ন প্রত্যাশার এই তালিকায় প্রবীণ অপেক্ষা  নতুন মুখ এর আগমন বেশি! তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলেছেন এমন অনেক নেতারা মনোনয়ন চেয়ে পার্টির ফর্ম কিনেছেন।তৃনমূলের নেতা-কর্মীরা দুর্নীতিমুক্ত, সৎ ও ক্লিন ইমেজের প্রার্থী চায় এ আসনে।

 

পাশাপাশি আওয়ামী লীগ এই বছরের নির্বাচনে দলের কোন্দল চরম আকার এর কারণে সর্বোচ্চ সংখ্যক মনোনয়ন প্রত্যাশী  দিয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের হাজার হাজার টাকার বর্তমান চলতি বিকাশের ধারাবাহিক অব্যাহত সুরক্ষার জন্য আবার নৌকায় বিকল্প নেই।

 

অপরদিকে বিএনপি ,আওয়ামীলীগের কোন্দল কে কাজে লাগিয়ে ঘুরে দাড়াতে চায়। 1979 সালে সংসদ সদস্য হিসেবে প্রথম আলহাজ মোহাম্মদ মোয়াজ্জাম হোসেন বিএনপির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

 

এদিকে, বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে কালাপাড়া উপজেলা বিএনপির সাবেক আহবায়ক, কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক মহাসচিব, পটুয়াখালী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিএনপি আলহাজ মো। মনিরুজ্জামান মনির, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতা, কালাপাড়া উপজেলা বিএনপি সভাপতি এবিএম মোশাররফ হোসেন ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান একাদশ সংসদ নির্বাচনে বি এনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী।

বিএন পি নেতারা ও কর্মীরা মনে করেন, বিএনপির কাছ থেকে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিকে মনোনয়ন দিলে হারিয়ে যাওয়া আসন পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হবে।

 

জাতীয় পার্টি ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী রয়েছে। এই নির্বাচনী এলাকাটি 70 এর দশকের পর থেকে আওয়ামী লীগের দুর্গ হিসেবে পরিচিত। অষ্টম, নবম ও দশম জাতীয় নির্বাচনে তিনবার নৌ-মনোনয়ন পাওয়ার জন্য মিঃ মাহবুবুর রহমান তালুকদার এমপি নির্বাচিত হয়েছেন।

 

আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতারা বলছেন যে, যদি সৎ, যোগ্য ব্যক্তি, দলের মনোনয়ন গ্রহণযোগ্য ব্যক্তির মনোনয়ন, আওয়ামী লীগের বিজয় শোনা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..